মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভাষা ও সংস্কৃতি

ভাষাসংস্কৃতি

মানুষেরসমাজবদ্ধতারসাথেভাষারউদ্ভবজড়িত, কারণপরস্পরেরকাছেমনেরভাবব্যক্তকরারজন্যইভাষারআবশ্যিকতা।সংস্কৃতিরসাথেরয়েছেভাষারঘনিষ্ঠযোগাযোগ।আঞ্চলিকভাষাবিকশিতহয়কোননির্দিষ্টসাংস্কৃতিকঅঞ্চলকেকেন্দ্রকরে।বাগেরহাটজেলার মোল্লাহাট উপজেলার সংস্কৃতিকঅঞ্চলস্বতন্ত্রহয়েছেএকদিকেমধুমতিনদীঅন্যদিকেদেশখ্যাত কেন্দুয়ার বিল সহ নালুয়া নদী এবং পার্শ্ববর্তি জেলা নড়াইল জেলার নড়াগাতি উপজেলা এবং খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলা বিভক্তকারী নদী আঠারো বাকি। যেঅঞ্চলেরসীমানায়এসেছেমোল্লাহাটে, গোপালগঞ্জ, নড়াইল, বাগেরহাটের ফকিরহাট, বাগেরহাটের চিতলমারী, খুলনার তেরখাদারকিছু অংশ।কিছুকিছুঅমিলথাকারপরওএইসাংস্কৃতিকঅঞ্চলেরআঞ্চলিকভাষা, প্রবাদপ্রবচনওলোকগাঁথায়বেশকিছুমিলপরিলক্ষিতহয়।বিভিন্নজাতিগোষ্ঠীরঘনিষ্ঠমেলামেশায়জাতিযেমনসংকরহয়েওঠেমানুষেমানুষেমেলামেশায়ভাষাওতেমনিসংকরহয়েওঠেএবংএভাবেইউপভাষারচরিত্রকখনওবিপন্নহয়েযায়।মোল্লাহাটেরসাংস্কৃতিকঅঞ্চলটিসেঅর্থেঅনেকটাইনিরাপদএবংএইনিরাপত্তাইএঅঞ্চলেরআঞ্চলিকভাষাকেদিয়েছেস্বাতন্ত্র্য।
উপজেলারআঞ্চলিক/স্থানীয়ভাষা:  সাথে সাথেবাঘাবাগদিআয়াকইছে“ফটিকদা, মাডাকতিছে”।ফটিককইছে“যাবো না”।বাঘাতারেজোরকরেকোলেতুইলেনিয়েগেল, ফটিককিছুনাপাইরেরাগেরচোটেআত-পাওলাড়াইছিল।ফটিকরেদেখেতারমাআগুনেরমূর্তিরমতোহইয়াগেল, কলো“আবারতুইমাখনরেমারছিস” ফটিককলো“নামারি নেই”।“আবার মিথ্যে কথা কইস”।“কোনসময়মারি নেই।মাখনরেবাত্তা নেওূ”।
প্রচলিতবুলি, বচন, কৌতুক, জোকস, প্রবাদবাক্য
যার  নাই নেয়াজ তার আবার হাগড়া
[যার নাই মান তার আবার সন্মান]
(খায় খয়রাত করে হাটে লেম ধরাইয়ে) (ভাত পায় না চা খায়)
[যোগ্যতা না থাকা সত্যেও কর্ম হাসিল করার চেষ্টা।]

লোকসংস্কৃতি, লোকউৎসব, লোকসংগীত, লোকগাঁথা
লোকসংস্কৃতি,লোকউৎসব, লোকসংগীত, লোকগাঁথারদিকদিয়ে বাগেরহাট জেলারমোল্লাহাট উপজেলায় অন্যতমহলোজারিগান, কবিগান, পালাগান, গুনগান ইত্যাদি।

প্রধানপ্রধানউৎসব
নবান্ন:মোল্লাহাটউপজেলাতেসুদূরঅতীতহতেনতুনধানউঠাউপলক্ষ্যেনবান্নউৎসবপ্রতিঘরেঘরেপালিতহয়েআসছে।অগ্রহায়নমাসেনতুনফসলঘরেউঠানোরপরঐতিহ্যবাহীখাদ্যপরিবেশনেরনামইহলোনবান্ন।নবান্নেপিঠাপার্বণেরসাথেসাথেপুরনোকিচ্ছা, কাহিনী, গীত, জারিএইসবকেউপজীব্যকরেচলেরাত্রীকালীনগানেরআসর।
পিঠাউৎসব:অগ্রহায়নপৌষেরশীতেনবান্নেরপিঠা-মিষ্টিউৎসবেরসময়মোল্লাহাটেরপ্রত্যন্তগ্রামাঞ্চলেএকউৎসবমুখরপরিবেশসৃষ্টিকরে।নানাধরনেরপিঠারমধ্যেরয়েছেতেলেরপিঠা, তকতিপিঠা, পাটিসাপটা, মসলাপিঠা, কুলিপিঠা, রসপানপিঠা, দইপিঠা, ভাপাপিঠা, দুধকলাপিঠা, চিতলপিঠা, খেজুররসেরপিঠা, নকসীপিঠাইত্যাদি।
নববর্ষমেলা:
বাগেরহাট জেলার মোল্লাহাট উপজেলারগ্রামাঞ্চলেএখনওশহরেরমতোবর্ষবরণেরপ্রচলনশুরুনাহলেওঅতিপ্রাচীনকালহতেএখানেবিরলঅথচলোকজঐতিহ্যেরদাবীনিয়েদীপশিখাজ্বালিয়েবাংলাবর্ষবিদায়েরএকনীরবআনুষ্ঠানিকতাপালনকরাহতো।মেলাউপলক্ষেমহিলারাবাপেরবাড়ীতে  আসতএবংমেলায়এসেছোটবাচ্চারাখেলনা, বাঁশি, কিনতো।মেলায়বিভিন্নরকমসার্কাস, দোলনাখেলাচলতো।
যাত্রাগান:
সাধারনতশীতকালেপ্রাচীনলোককাহিনীরউপরভিত্তিকরেযাত্রারআয়োজনকরাহয়।এইসবযাত্রাএবংযাত্রাগানকখনোকখনোরাতব্যাপীহয়েথাকে।যেসবকাহিনী/বিষয়েরউপরভিত্তিকরেযাত্রাহয়তমধ্যেমহুয়া, নবাবসিরাজ-উদ-দৌলাএবংস্থানীয়ভাবেরচিতবিভিন্নকাহিনী/উপাখ্যানঅন্যতম।
পালাগান:বর্তমানেপালাগানেরআয়োজনহয়নাবললেইচলে।তবেপূর্বেবিভিন্নস্থানেপালাগানেরআয়োজনকরাহতো।

নৌকাবাইচ:
বর্ষাকালেনদীবাবড়বড়খালগুলিযখনপানিতেপরিপূর্ণথাকেতখনবিভিন্নস্থানেনৌকাবাইচেরআয়োজনকরাহয়েথাকে।প্রতিযোগিতারআকারেআয়োজিতএসবনৌকাবাইচঅনুষ্ঠানস্থানীয়প্রশাসনএরসহযোগিতায়আয়োজনকরাহয়।
বিয়ে/জম্মদিন/বিবাহবার্ষিকীরআনুষ্ঠানিকতাসংক্রান্ত
বাংলাদেশেরঅন্যান্যজেলারমতোইসামাজিকআচারঅনুষ্ঠানেরমধ্যদিয়েইবাগেরহাটজেলার মোল্লা্হাট উপজেলায়বিয়েঅনুষ্ঠিতহয়েথাকে।তবেজম্মদিন, বিবাহবার্ষিকীপালনেরপ্রচলনআগেতেমননাথাকলেওইদানিংমধ্যবিত্তওউচ্চবিত্তদেরমাঝেতাব্যাপকভাবেদেখাযাচ্ছে।বিয়েতেবরেরপক্ষথেকেবরযাত্রীযায়কনেরবাড়ীতে।কনেরবাড়ীতেবরযাত্রীদেরগায়েরংছিটিয়েদেওয়াররেওয়াজবহুদিনের, এইনিয়েঝামেলাওকমহয়না।বরপক্ষেরআনাজিনিসপত্রনিয়েঘাটাঘাটি, সমালোচনা, রসাত্মকআলোচনাচলেকনেপক্ষেরলোকজনেরমধ্যে।খাওয়া-দাওয়াওবিয়েশেষেকনেকেবরেরবাড়ীতেনিয়েআসাহয়, সেখানেমহিলারাঅপেক্ষাকরেনধান, দূর্বা, চিনিইত্যাদিনিয়েকনেকেসাদরেগ্রহণকরারজন্য।সাধারণতদুই-তিনদিনপরবরওকনেমেয়েরবাড়ীতেবেড়াতেযায়, যাকে‘মেলানী’ বলাহয়।কয়েকদিনসেখানেথেকেপুণরায়বরনিজেরবাড়ীতেফিরেআসেন।
প্রচলিতখেলাধুলা, খেলাধুলারবিবর্তন
পূর্বেএঅঞ্চলেপ্রধানআমোদপ্রমোদছিলঘুড়িউড়ানো, নাচগান, লীলাওতাসখেলা, নৌকাবিহার, পাশাখেলা, বানরলম্ফ, মোরগলড়াই, দাড়িয়াবান্দা, কাবাডি, ক্যারম, গোল্লাছুট, দাবা, ব্যাডমিন্টন, ফুটবল, বৌচিইত্যাদি।গোল্লাছুট, দাড়িয়াবান্দা, কাবাডি, মোরগলড়াইইত্যাদিখেলারস্থানক্রমেদখলকরেনিয়েছেফুটবল, ক্রিকেটইত্যাদিখেলা।প্রযুক্তিরউন্নতিরদরুনটেলিভিশনেরমাধ্যমেঅতিঅল্পসময়েরমধ্যেইফুটবলক্রিকেটখেলাগ্রামওশহরেসমানভাবেজনপ্রিয়হয়েউঠেছে।তাইআজবেশিরভাগমাঠইদাড়িয়াবান্দা, হা-ডু-ডু, বৌচি, গোল্লাছুটইত্যাদিরপরিবর্তেক্রিকেটবাফুটবলদখলকরেনিয়েছে।তবেগ্রামেএখনওবিশেষকরেমেয়েদেরমধ্যেগোল্লাছুট, বৌচিইত্যাদিপ্রচলিতরয়েছে।
খাদ্যভ্যাস, মিষ্টি-মিঠাই-পিঠা, স্থানীয়বিশেষখাবার:উপজেলারগ্রামীণউৎসবওমেলায়নানাধরনেরওবৈচিত্রেভরপুরসৌখিনখাদ্যবস্তুপরিবেশনকরতেদেখাযায়।এসবেরমধ্যেরয়েছেমিষ্টি, নিমকি, খাস্তা, মুড়িরমোয়া, চিঁড়ারমোয়া, খৈএরমোয়া, তিলেরখাজা, কদমা, গজা, কটকটি, হাওয়াইমিঠাইইত্যাদি।সকাল-এভাত/খিচুরী/রুটি, দুপুরেওরাতেভাতখাওয়ারপ্রচলনদেখাযায়।তবে‘জাউ’ এঅঞ্চলেরএকটিজনপ্রিয়খাবারবিশেষকরেঅস্বচ্ছলবাগ্রামীণপরিবারেরমধ্যে।মিষ্টিরমধ্যেরয়েছে, মুক্তাগাছায়মন্ডা, মালাইকারী, কালোজাম, রসমালাই, ছানারপোলাওএবংগুড়েরসন্দেশইত্যাদি।
জাতিগত/আঞ্চলিক/ভৌগোলিকবিশেষঅনুষ্ঠানমালাএ উপজেলায়বসবাসরতহিন্দু মুসলমানরাতাদের নিজস্বসাংস্কৃতিকঅনুষ্ঠানমালাপালনকরেথাকে।এছাড়াবাংলাদেশেরঅন্যান্যঅঞ্চলেরমতনএউপজেলার অধীবাসিরাবৈশাখীমেলা, ঈদউৎসব, দূর্গাপূজাসহঅন্যান্যউৎসবজাকজমকেরসাথেউদযাপনকরেথাকেন।এসবঅনুষ্ঠানেরমৌলিকবৈশিষ্ট্যহলোসাম্প্রদায়িকতামুক্ত, নির্মলভ্রাতৃত্ববোধ, জাতি-ধর্ম-বর্ণনির্বিশেষেএকেঅন্যকেজানারস্পৃহাওআগ্রহভরাঅংশগ্রহণ।
সামাজিকরীতিনীতি/সংস্কার/কুসংস্কার/প্রচলিতধ্যানধারণা
অতিথিপরায়ণতাএঅঞ্চলেরএকটিউল্লেখযোগ্যরীতি।ধনীগরীবনির্বিশেষেআপ্যায়নবামেহমানদারীররীতিটিসত্যিইপ্রশংসারদাবীরাখে।মুসলমানদেরমধ্যেধর্মীয়উৎসবসমূহেআত্মীয়দেরবাড়ীতেবেড়াতেযাওয়া, নতুনকাপড়পরিধানকরা, ভালখাবারতৈরীকরাওঅপরকেদাওয়াতকরেখাওয়ানো, ঘনিষ্ঠদেরনতুনকাপড়উপহারদেয়াইত্যাদিরীতিঅন্যান্যঅঞ্চলেরমতোএখানেওপ্রচলিত।মুসলিমমহিলাদেরমধ্যেপর্দাপালনেররেওয়াজবিদ্যমান, অন্যান্যঅঞ্চলেরতুলনায়অধিকহারে।প্রায়অধিকাংশ ক্ষেত্রেইবিশেষকরেগ্রামেপুরুষেরাআয়রোজগারব্যস্তথাকেনআরমহিলারাঘরেরকাজকর্মসামলান।
বাল্যবিবাহ, বহুবিবাহ, যৌতুক, নারীনির্যাতনসংক্রান্তশহরাঞ্চলেএবংশিক্ষিতদেরমধ্যেবাল্যবিবাহেরপ্রচলননেইবললেইচলে।তবেদরিদ্রএবংগ্রামীণপরিবারেএখনওবাল্যবিবাহঘটতেদেখাযায়।সামাজিকভাবেবহুবিবাহপ্রশংসনীয়নয়।যৌতুকসম্পূর্ণনির্মূলহয়নি- একথাবলাযায়তবেতারপরিমাণহ্রাসপেয়েছে।কালেরআবর্তেযৌতুকেরপণ্যেপরিবর্তনএসেছে।সাইকেল, টিভি, রেডিওএরপরিবর্তেএখনজমি, চাকুরীরজন্যঘুষেরটাকা, বরেরবিদেশযেতেপ্রয়োজনীয়টাকাদাবীকরাহয়যাযৌতুকেরইবিবর্তন।


Share with :

Facebook Twitter